আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে চান? - বিস্তারিত
ঢাকা আজঃ শুক্রবার, ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ ইং, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরী
সর্বশেষঃ

দুমকীতে আমনে মাজরা পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষকরা।

দুমকী(পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর দুমকী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আমন ধানের ক্ষেতে মাজরা পোকার আক্রমণে নষ্ট হয়ে গেছে রোপা। কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। অনেক কৃষক দুঃশ্চিন্তায় দিন যাপন করছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় উচু জমিতে কৃষকরা শ্রাবন মাসে যে সকল আমনের বীজ বপন করেছিল তা মাজরা পোকা ও পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণে নষ্ট হয়ে গেছে। কোন কোন ক্ষেত নতুন আক্রান্ত হয়েছে।
উপজেলার মুরাদিয়া, শ্রীরামপুর, পাঙ্গাশিয়া, আঙ্গারিয়া ও লেবুখালী ইউনিয়নের সর্বত্র‌ই আগাম রোপণকৃত আমনের ক্ষেতে মাজরা পোকার আক্রমণ দেখা যায়।
শ্রীরামপুর ইউনিয়নের স্যানের চরের কৃষক মোশারফ হাং বলেন, আমাদের জমিতে মাজরা পোকার আক্রমণে আমন রোপা নষ্ট হয়ে গেছে। পুনরায় জমি চাষ করে আমনের বুনা বপন করব।
মুরাদিয়ার ৩নং ওয়ার্ডের কালেখা’র কৃষক কালাম প্যাদা বলেন, আমাদের এখানে সবার জমির আমন ও ইরি ধানের রোপা নষ্ট হয়ে গেছে। আমরা ২বার জমিতে সার ও কীটনাশক প্রয়োগ করেও সুফল পাইনি।
মুরাদিয়ার ৬নং ওয়ার্ডের অপর এক কৃষক জাকির হোসেন হাওলাদার বলেন, জমি চাষাবাদ করে বীজ রোপণ করতে ও শ্রমিক মজুরি দিয়ে বেশ খরচ হয়। এরপর সার ঔষধ প্রয়োগ করেও কোন শেষ রক্ষা হয়নি। আমাদের এলাকার সকল কৃষকের জমিতে মাজরা পোকার আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পড়েছি।
পাঙ্গাশিয়ার নলদোয়ানীর কৃষক শাহজাহান মুন্সি বলেন, আমার একপ্লটে তিন একর জমিতে ইরি ধানের বীজ রোপনে ৪০হাজার টাকা খরচ হয়েছ। এখন সম্পূর্ণ জমির রোপা মরে গেছে। উপজেলা কৃষি অফিস ডাল পোতা, আলোক ফাঁদ ও ভিরতাকো, ডাসবান ও বেল্টএক্সার্টসহ বিভিন্ন কীট নাশক ঔষধ প্রয়োগের জন্য পরামর্শ দিচ্ছেন।
উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, শামীম খান ও তানিয়া আক্তার বলেন, আমরা কৃষকদের সরেজমিনে গিয়ে এর প্রতিকারে পরামর্শ দিতেছি। ইতিমধ্যে কৃষকদের রোপা আমন ক্ষেতে গাছের ডাল পুঁতে ৫০/১০০ মিটার দূরত্বে পোকা নিধনের জন্য আলোক ফাঁদ দিতেছি।
এব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ ইমরান হোসেন সংবাদ ‘কে বলেন, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন নিয়মিত মাঠপর্যায়ে সরেজমিনে গিয়ে তদারকি করেছেন, কৃষকদের বিভিন্ন ভাবে পরামর্শ, জমিতে ডাল পোঁতা (পার্চিং), আলোক ফাঁদ, লিফলেট বিতরণ ও জমির গুনাগুণ বিবেচনা করে বালাই নাশক ঔষধ প্রয়োগের জন্য পরামর্শ দিচ্ছেন। আমি সরেজমিন পরিদর্শন করেছি।

ফেসবুকে লাইক দিন