চরফ্যাশনের তাসলিমা দেশ সেরা নারী শিক্ষক

শিক্ষক বাতায়নে সেরা শিক্ষক ক্যাটাগরিতে দেশসেরা নারী শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার নারী শিক্ষক তাসলিমা বেগম। গত ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে অবদানের জন্য শিক্ষক ক্যাটাগরিতে তাকে দেশসেরা সফল নারী হিসাবে সম্মাননা প্রদান করা হয়। ঢাকার আইসিটি টাওয়ারে এসপায়ার টু ইনোভেট-এটুআই আয়োজিত আলোচনা সভা ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ী নারী শিক্ষক তাসলিমা হোসাইনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়-এর মুখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি বিষয়ক) জুয়েনা আজিজ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ-এর সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ।

এটুআই-এর প্রকল্প পরিচালক (যুগ্মসচিব) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীরের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে অনুষ্ঠানে এটুআই-এর যুগ্ম-প্রকল্প পরিচালক (যুগ্মসচিব) নাহিদ সুলতানা মল্লিক, এটুআই-এর পলিসি অ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী, জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি), বাংলাদেশের কান্ট্রি ইকোনোমিস্ট ড. নাজনীন আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবোটিক্স অ্যান্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল, বাংলাদেশ বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের (এফএসপি কান্ট্রি টিম) প্রোগ্রাম অফিসার স্নিগ্ধা আলী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট ব্যারিস্টার ফারজানা মাহমুদ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও এটুআই-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
তাসলিমা বেগম উপকূলীয় দ্বীপ জেলা ভোলার সর্ব দক্ষিণের উপজেলা চরফ্যাশনের চরফ্যাশন সরকারি টি ব্যারেট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক। শিক্ষক বাতায়নে সেরা শিক্ষক ক্যাটাগরিতে দেশসেরা নারী শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ায় অনুভূতি জানতে চাওয়া হলে তাসলিমা বেগম বলেন, এতো বড় একটা অর্জনের সম্পূর্ণ প্রশংসার দাবিদার শিক্ষক বাতায়ন। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত একটা উপজেলা থেকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে যাঁরা নেপথ্যে থেকে উৎসাহ, অনুপ্রেরণা ও মানসিক শক্তি যুগিয়েছেন তাঁদের প্রতি আমি চির কৃতজ্ঞ।
তিনি আরও বলেন, আজকের এতো বড় সম্মাননা আমার কাজের দ্বায়িত্ব আরো অনেক গুন বাড়িয়ে দিল। আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আমাদের প্রিয় মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের গবেষণা কর্মকর্তা নুরে আলম সিদ্দিকী স্যারের প্রতি। যিনি আমার পথ দেখানো প্রথম প্রেরণা। পরিবারের সহযোগিতার কারণে এই সফলতা পেতে অনেকটা সহজ হয়েছে বলেও জানান তাসলিমা বেগম।
এ ব্যাপারে চরফ্যাশন সরকারি টি ব্যারেট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তানভীর আহমেদ বৃহস্পতিবার এ প্রতিবেদক কে বলেন, আমাদের স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক তাসলিমা বেগম শিক্ষক বাতায়নে জাতীয় পর্যায় থেকে যে সম্মাননা নিয়ে এসেছেন সেটা আমাদের জন্য একটা গৌরবের বিষয়। এতে স্কুলের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকবৃন্দ আনন্দিত।
তিনি আরও বলেন, শিক্ষকতার পাশাপাশি আইসিটির বিষয়ে তাসলিমা বেগমের যে দক্ষতা রয়েছে তাতে আমাদের স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থী সকলেই উপকৃত হচ্ছেন। বর্তমানে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে কাজ করছেন সেই ধারাবাহিকতায় ভোলা জেলার প্রত্যন্ত একটা উপজেলার স্কুলে কিছুটা হলেও পূরণ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে ভোলা জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের গবেষণা কর্মকর্তা নুরে আলম সিদ্দিকী বলেন, তাসলিমা বেগম একজন গুনি ও মেধাবী শিক্ষক। তার মধ্যে উদ্ভাবনী শক্তি রয়েছে। তাই, তাকে শুরুতে পথ দেখিয়েছি ঠিকই। কিন্তু পরবর্তীতে নিজের ইচ্ছা এবং চেষ্টায় সে সফলতা পেয়েছে। নুরে আলম সিদ্দিকী আরও বলেন, শিক্ষা অফিসের একজন কর্মকর্তা হিসাবে ভোলায় এমন শতাধিক শিক্ষককে পথ দেখানোর চেষ্টা করেছি। তার মধ্যে তাসলিমা বেগম একজন অন্যতম শিক্ষক।

ফেসবুকে লাইক দিন