ভোলার দৌলতখানে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ,বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার অনশন।।

দৌলতখান (ভোলা) প্রতিনিধি

ভোলার দৌলতখানে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে বসেছেন এক প্রেমিকা। বুধবার সন্ধা থেকে তিনি অনশন শুরু করেন। উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের রহম আলী বেপারি বাড়ির এ ঘটনা ঘটে। প্রেমিক রাজমিস্ত্রি যুবক সালাহ উদ্দিন ওই ওয়ার্ডের আবু তাহেরের ছেলে। আর প্রেমিকার বাড়ি একই ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে। এ ঘটনার পর থেকে সালাহ উদ্দিন পলাতক রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন গেলে ফারজানা (ছদ্মনাম) জানান, গত দুই বছর যাবত সালাউদ্দিনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। প্রেমের সুযোগ নিয়ে সালাউদ্দিন বিয়ের প্রতিশ্রম্নতি দিয়ে ওই এলাকার ঘোষের হাটের একটি ফুসকার দোকানের নির্জন কক্ষে নিয়ে একাধিকবার ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে। গত মঙ্গলবার মোবাইল ফোনে প্রেমিক সালাউদ্দিনকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ফারজানা (ছদ্মনাম)। পরে সালাহ উদ্দিন ফারজানাকে (ছদ্মনাম) বাড়িতে চলে আসার কথা বলে। বুধবার দুপুরে প্রেমিকা ফারজানা (ছদ্মনাম) বিয়ের দাবিতে সালাউদ্দিনের ঘরে এসে ওঠে। এ সময় সালাউদ্দিনের স্বজনরা জোরপূর্বক ফারজানাকে (ছদ্মনাম) ঘর থেকে বের করে দিয়ে ঘরের দরজায় তালা লাগিয়ে সবাই শটকে পড়ে। অনন্যোপায় হয়ে তালাবদ্ধ ঘরের দরজায় অনশনে বসে পড়েন প্রেমিকা। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। দৌলতখান থানার ওসি বজলার রহমান বলেন, এ ব্যাপারে থানায় কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ এলে তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন