সর্বশেষঃ

থানকুনি পাতার গুনাগুণ !!

অনলাইন ডেস্ক:থানকুনিপাতা খেলে কি করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়? পাশের বাড়িতে কেউ করোনা আক্রান্ত হলে কী করব? বাড়িতেই কি সাবান বা স্যানিটাইজার বানানো সম্ভব? করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরুর দিকে এমন নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছিল মানুষের মনে। নির্ভরযোগ্য উত্তর তখন সহজলভ্য ছিল না। উল্টো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছিল গুজবের ছড়াছড়ি। এমন সময় তথ্য-উপাত্ত নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সচেতনতামূলক ভিডিও নিয়ে হাজির হয়েছিলেন যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের (এনএইচএস) চিকিৎসক তাসনিম জারা। ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস করে তাসনিম যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে ‘এভিডেন্স বেজড মেডিসিন’ বিষয়ে স্নাতকোত্তর করছেন। করোনার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত সম্মুখসারির একজন চিকিৎসক হিসেবে করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন তিনি। সহজ আর প্রাঞ্জল বাংলা ভাষায় তাসনিমের ভিডিও তখন ছড়িয়ে পড়ে লাখো মানুষের কাছে। শুরুতে শুধু করোনাকেন্দ্রিক ভিডিও বানালেও বর্তমানে স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও দীর্ঘমেয়াদি নানা রোগে মানুষের করণীয় নিয়ে ভিডিও বানাচ্ছেন তিনি। পাঁচ লাখের বেশি মানুষ এখন তাসনিমের ফেসবুক পেজ অনুসরণ করেন। অন্যদিকে ইউটিউবে তাঁর স্বাস্থ্যবার্তার ভিডিও প্রায় দেড় কোটিবার দেখা হয়েছে।

তাসনিমের ভিডিওগুলোর বিশেষত্ব হলো, ঝরঝরে সহজ বাংলায় প্রতিটি বিষয়ের খুঁটিনাটি ব্যাখ্যা দেন তিনি। ভিডিওর সঙ্গে জুড়ে দেওয়া থাকে একাধিক তথ্যসূত্র। সম্প্রতি তাসনিমের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ হলো। বললেন তাঁর ভিডিও নির্মাণের পেছনের গল্প। প্রতিটি ভিডিও তৈরির আগে তথ্য-উপাত্ত যাচাই, বাছাই ও পর্যালোচনার বেশ কটি ধাপ পার করেন তিনি। তাসনিম বলেন, ‘আমি ভিডিও নির্মাণের আগে সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য সূত্র এবং একাধিক গবেষণা থেকে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করি।’ভিডিও নির্মাণ ছাড়াও তাঁর বর্তমান ব্যস্ততা ‘সহায়’ নামের একটি ওয়েবসাইট ঘিরে। তাসনিম তাঁর কিছু সহকর্মী আর বন্ধুদের নিয়ে মাস ছয়েক আগে এই ওয়েবসাইট চালু করেছেন। স্বাস্থ্যসেবাসংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য ও বিভিন্ন রোগের লক্ষণ, উপশম ও করণীয় নিয়ে পরামর্শ দিয়ে সাজানো হচ্ছে ওয়েবসাইটটি।

ফেসবুকে লাইক দিন