আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে চান? - বিস্তারিত
ঢাকা আজঃ রবিবার, ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ৩রা মার্চ, ২০২৪ ইং, ২১শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরী
সর্বশেষঃ

বামনায় ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি ও নবজাতকের মৃত্যু ॥ ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বামনা(বরগুনা) প্রতিনিধিঃ বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা কলেজ রোডে অবস্থিত সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সোমবার (১৫ জানুয়ারি) রাত পোনে ১১টায় হাতুরে ডাক্তার দিয়ে সিজারিয়ান অপারেশনের সময় প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তার(১৯) এবং নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। এব্যাপারে প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তারের পিতা মোঃ ছগির হোসেন বাদী হয়ে সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ মিজানুর রহমান এবং ইউপি সদস্য মোঃ রেজাউল ইসলামসহ ৮ জনকে আসামী করে মঙ্গলবার বামনা থানায় মামলা দায়ের করেছে। যার মামলা নম্বর-০৬, তারিখঃ ১৬/০১/২০২৪। প্রশাসন সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন।
ভুক্তভোগী পরিবারের সূত্রে জানা যায় যে, বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ মিজানুর রহমান এবং ইউপি সদস্য মোঃ রেজাউল ইসলামের মালিকানাধীন উপজেলার ডৌয়াতলা কলেজ রোডে অবস্থিত সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সোমবার বিকালে উপজেলার উত্তর রামনা গ্রামের মোঃ রফিকুল ইসলাম (তারেক) এর স্ত্রী প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তারকে ভর্তি করানো হয়। রাত সাড়ে ৮টায় সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক পক্ষ আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সবুজ কুমার দাস সহ ৫/৬ জনে মিলে প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তারের সিজারিয়ান অপারেশন শুরু করেন। রাত পোনে ১১টায় সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অপারেশন থিয়েটারে সিজারিয়ান অপারেশনের সময় প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তার এবং নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। এর পর সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক পক্ষ, ডাক্তার, নার্সসহ সকল স্টাফরা পালিয়ে যায়।
মঙ্গলবার সকাল ৯ টায় বামনা থানা অফিসার ইনচার্জ তুষার কুমার মন্ডল এর নেতৃত্বে প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তারের বাবার বাড়ী উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়নের গুদিঘাটা গ্রাম থেকে প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তার ও নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে বরগুনা মর্গে পাঠায়। এব্যাপারে প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তারের পিতা মোঃ ছগির হোসেন বাদী হয়ে সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে মালিক বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ মিজানুর রহমান এবং ইউপি সদস্য মোঃ রেজাউল ইসলামসহ ৮ জনকে আসামী করে মঙ্গলবার বামনা থানায় মামলা দায়ের করেছে। যার মামলা নম্বর-০৬, তারিখঃ ১৬/০১/২০২৪।
মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় বামনা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ তারেক হাসান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান এবং বামনা থানা অফিসার ইনচার্জ তুষার কুমার মন্ডল সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে তালা লাগিয়ে দেন।
বামনা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান জানান যে, বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা কলেজ রোডে অবস্থিত সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিচালনার জন্য বৈধ কোন কাগজপত্র নেই। সুন্দরবন হসপিটাল কর্তৃপক্ষের ভুল চিকিৎসার কারণে প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তার ও নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। তাই আমরা সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে তালা লাগিয়ে দিয়েছি।
বামনা থানা অফিসার ইনচার্জ তুষার কুমার মন্ডল জানান যে, তারা মামলা গ্রহণের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করছেন। ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত এবং মামলার বাদীর দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে এজাহার নিয়েছেন। আসামীদের গ্রেফতার প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে বৈধ কোন কাগজপত্র না থাকায় বামনা উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ তারেক হাসান এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামানের সহযোগিতায় সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে তালা লাগিয়ে দিয়েছি।
অপরদিকে সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষের ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি মোসাঃ মেঘলা আক্তার এবং নবজাতকের মৃত্যু’র লোমহর্ষক ঘটনার তাৎক্ষণিক আইনী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বামনা থানা অফিসার ইনচার্জ তুষার কুমার মন্ডলকে এলাকাবাসী অভিনন্দন জানান।
সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চেয়ারম্যান এবং বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ মিজানুর রহমানের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিয়েও পাওয়া যায়নি। অপর দিকে সুন্দরবন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গিয়ে মালিক পক্ষ, ডাক্তার, নার্সসহ কোন স্টাফ পাওয়া যায়নি।

ফেসবুকে লাইক দিন