আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে চান? - বিস্তারিত
ঢাকা আজঃ শনিবার, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ ইং, ৫ই মুহাররম, ১৪৪৬ হিজরী
সর্বশেষঃ

জাতিকে মেধাশূন্য করতে হত্যাকাণ্ড চালায় পাকিস্তানি দোসররা- ইউএনও রায়হান উজ্জামান

বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি: বুদ্ধিজীবীদের এই দিনে বেদনাদায়ক এ ঘৃণ্য হত্যাকাণ্ড ঘটে। মুক্তিযুদ্ধে নিশ্চিত পরাজয় জেনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী বাঙালি জাতিকে মেধাশূন্য করার ঘৃণ্য চক্রান্ত করে। তারা তাদের এ দেশীয় দোসরদের নিয়ে শিক্ষক, বিজ্ঞানী, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, শিল্পী, চিকিৎসক, প্রকৌশলী, আইনজীবী, ক্রীড়াবিদ, সরকারি কর্মকর্তাসহ বহু মানুষকে হত্যা করে। এমনটাই বলেছেন বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রায়হান উজ্জামান।
বোরহানউদ্দিন উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে (১৪ ডিসেম্বর ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ), বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সম্মেলন কক্ষে শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভা সঞ্চালন করেছেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা।
এসময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম,উপজেলা (ভূমি) সহকারী নাজমুল হাসান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহফুজা ইয়াসমিন, থানা অফিসার ইনচার্জ শাহিন ফকির, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল করিম, মেডিকেল অফিসার শাশ্বত চন্দন। এসময় উক্ত আলোচনা সভায় আরো অংশগ্রহণ করেন৷ বোরহানউদ্দিন রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক আরিফ পণ্ডিত, সাংগঠনিক সম্পাদক আশিকুর রহমান ও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থাসহ ‌‌ সর্বস্তরের মানুষ।
বোরহানউদ্দিন থানা অফিসার ইনচার্জ বলেন,ইতিহাসের একটি কলঙ্কময় দিন আজ, জাতির সূর্য সন্তানদের এই দিনে নৃশংসভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। এটা ছিল জাতিকে মেধাশূন্য করার নীল নকশা।
উপজেলা (ভূমি) সহকারী বলেন,আমাদের জাতিকে ধ্বংস করার জন্যই এমন ঘৃণ্য হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে। মূলত বুদ্ধিজীবীরা আমাদের অনুপ্রেরণা ছিল। বিজয়ের প্রাক্কালে দখলদার পাকিস্তানি বাহিনী ও তার দোসররা পরাজয় নিশ্চিত জেনে মেতে ওঠে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ডে।
উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, পরিকল্পনা করে বুদ্ধিজীবী হত্যার নীল নকশা এঁকেছিল দোসরা। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর একমাত্র লক্ষ্য ছিল আমাদের মেরুদণ্ডহীন করা।

ফেসবুকে লাইক দিন