আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে চান? - বিস্তারিত
ঢাকা আজঃ মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে মে, ২০২৪ ইং, ১২ই জিলক্বদ, ১৪৪৫ হিজরী
সর্বশেষঃ

পিয়াজে’র ডাবল সেঞ্চুরি! ঝালকাঠিতে চলছে দাম বাড়ানোর অসুস্থ প্রতিযোগিতা

মশিউর রহমান রাসেল (ঝালকাঠি প্রতিনিধি): আজ হঠাৎ করেই আবারো বাড়ল পেঁয়াজের দাম পেঁয়াজের প্রতি কেজিতে ১০০ টাকা বা কোথাও তারও বেশি বাড়ালো দোকানদাররা৷ ঝালকাঠি এর বেশিরভাগ বাজার ঘুড়ে দেখা গেছে প্রতি কেজি পেঁয়াজ এর মূল্য ১৮০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
গতকাল রাত পর্যন্ত যে পিয়াজ বিক্রি হয়েছে ১১০ টাকা রাতের মধ্যেই আলাদীনের চেরাগ পেয়ে বসলো আড়ৎদার এবং ফরিয়া ব্যাবসায়ীরা। তবে একই পিয়াজ বিভিন্ন বাজারে বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে বলে জানা গেছে। একজন ব্যবসায়ী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিনি জানান, সরবরাহ বাড়াতে ও দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগামী বছরের মার্চ পর্যন্ত পেঁয়াজ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ভারত। দেশটির বৈদেশিক বাণিজ্য অধিদফতরের (ডিজিএফটি) এক প্রজ্ঞাপনে এ ঘোষণার কথা বলা হয়েছে। (খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া)।
যে কারনেই রাতের ভিতরেই এমন দাম বাড়ার হিড়িক পরলো। নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেনীর নাভিশ্বাস উঠে গেছে সকল পন্যের দাম দিন দিন বেড়েই চলছে। একজন ক্রেতা জানান আমার বেতন ২০ হাজার টাকা কিভাবে ৪ জনের সংসার চালাবো সেটাই খুজে পাচ্ছি না। এমন সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করার অনুরোধ জানান। সাধারন খেটে খাওয়া মানুষ।
ভারতের ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফরেন ট্রেড বা বৈদেশিক বাণিজ্য বিষয়ক মহাপরিচালকের কার্যালয় সূত্র উদ্ধৃত করে টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, আগামী বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত প্রতি টন পেঁয়াজের ন্যূনতম রফতানি মূল্য ৮০০ ডলারের সিদ্ধান্তটি কার্যকর থাকবে। এর আগে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি ২৯ অক্টোবর থেকে প্রতি টন পেঁয়াজের রফতানি মূল্য ৮০০ ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে।
ডিজিএফটি তাদের সর্বশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, ন্যূনতম রফতানি মূল্য ৮০০ ডলারের সিদ্ধান্ত চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। এছাড়া আগামী বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত রফতানি নিষিদ্ধ থাকবে।

ফেসবুকে লাইক দিন