আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে চান? - বিস্তারিত
ঢাকা আজঃ বুধবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে মে, ২০২৪ ইং, ১৩ই জিলক্বদ, ১৪৪৫ হিজরী
সর্বশেষঃ

রাজাপুরে হত্যা মামলার আসামী কিশোরগঞ্জ থেকে আটক-৪

নিউজ ডেস্ক: ঝালকাঠির রাজাপুর এর জগাইরহাট গ্রামের চাঞ্চল্যকর ডাবল মার্ডার মামলার এজাহারভূক্ত ৪ আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব বাহিনী। বরিশাল র‌্যাব-৮ ও কিশোরগজ্ঞ র‌্যাব-১৪ যৌথ অভিযান চালিয়ে গত ১৭ মে গভীর রাতে কিশোরগন্জ জেলার ভৈরব থানা এলাকা থেকে ৩ জন ও পূর্বধলা থানা থেকে আরো ১জন সহ ৪আসামীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ ব্যাপারে ১৮ মে বিকাল ৫টায় বরিশাল র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক লে.কর্নেল মাহমুদ হাসান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে চাঞ্চল্যকর ডাবল মার্ডার মামলার পালাতক ৪ আসামীকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। এ সময় মেজর মো: জাহাঙ্গীর আলম, সিনিয়র এডি রবিউল ইসলাম ও সিনিয়র এএসপি মোঃ ফয়জরসহ বরিশাল র‌্যাব-৮ এর অন্যান্য দায়িত্বশীল সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে, পূর্ব শত্রুতা এবং বিরোধের জের ধরে গত ২৪ এপ্রিল রাত সাড়ে ৭টায় শুক্তাগড় ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুর রব হাওলাদার ও তার ভাতিজা বেলায়েত হোসেনকে জগাইরহাট গ্রামে বাড়ী ফেরার পথে একই এলাকার ইউপি সদস্য মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম লালুর নেতৃত্বে এজাহারভূক্ত আসামীরা পথ রোধ করে অতর্কিত হামলা চালিয়ে চাইনিজ কুড়াল, চাপাতি, রামদা, ছুরি কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়। তাদের ডাক-চিৎকারে স্থানীয় এলাকাবাসী ছুটে এসে গুরুতর অবস্থায় রাজাপুর থানা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুর রব হাওলাদার ও বেলায়েত কে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার একদিন পর নিহত আব্দুর রব হাওলাদারের ছেলে মোঃ লিয়াকত হোসেন বাদী হয়ে রাজাপুর থানায় ১৫ জনকে আসামি করে দ:বি: ১৪৩/৩৪১/৩০২/৩৪/১১৪ ধারায় হত্যা মামলা (নং ১০) দায়ের করেন।
প্রেস ব্রিফিংয়ে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক লে.কর্নেল মাহমুদ হাসান জানান, লোমহর্ষক এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-৮ (সিপিএসসি ক্যাম্প) ঘটনায় গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি ও ছায়াতদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে দেখা যায় হত্যার সাথে জড়িত ব্যক্তিরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর গ্রেপ্তার এ্যঁড়াতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে আত্মগোপন করেছে।
পরবর্তীতে ১৭ মে রাত পোনে ১টায় র‌্যাব-৮ এবং র‌্যাব-১৪ এর যৌথ অভিযানে কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব এলাকা হতে এজাহারের ৩নং মো: খাদেম হোসেন (৫০), ৪ নং মো জাহিদুল ইসলাম রাজন (২২), ৬ নং আসামী মো: সজল হোসেন (২১) ও একই রাত ২টায় নেত্রকোনার পূর্বধলা থানা থেকে ৮ নং আসামী শহীদ হোসেন (৩০) কে গ্রেফতার করা হয়। ১৮ মে বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেফতারকৃতদের পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব।রাজাপুর থানার ডিউটি অফিসার আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯ টায় মুঠো জানান- আসামী থানা হাজতে আছে, আজকের জেলহাজতে পাঠানো হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন