সর্বশেষঃ

ভোলায় শিক্ষককে মারধর,মোটর সাইকেল ছিনতাই!!

লালমোহান প্রতিনিধিঃ-
ভোলার লালমোহনে ইব্রাহীম লিটন নামের এক শিক্ষককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার সাথে থাকা মোটরাসাইকেল ও মোবাইল ফোন সহ নগদ টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নিয়ে যায় তারা। আহত ইব্রাহীম লিটন উপজেলার ফুলকাচিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভৌত বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক। তার বাড়ি একই উপজেলার চরভুতা ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডের চর লেঙ্গুটিয়া গ্রামে। সে বর্তমানে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। শনিবার (০১ অক্টোবর) বিকেলে একই ইউনিয়নের মুগুরিয়া বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে।আহত স্কুল শিক্ষক মো. ইব্রাহীম লিটন অভিযোগ করে জানান, শনিবার বিকেলে তিনি মোটারসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে একটি টিউশনি করতে রওনা করেন। এসময় স্থানীয় মুগুরিয়া বাজারের কাছাকাছি পৌঁছালে স্থানীয় গাইনবাড়ীর লিটন তাকে দাড় করিয়ে বলে, ‘এ ইঞ্জিনিয়ার নোমানের লোক, মার ওকে’। পরে লিটনের সাথে স্থানীয় পাকার মাথা এলাকার ছালাউদ্দিন ও রিয়াজ মিলে তাকে প্রকাশ্যে বাজারের মধ্যে লাঠি দিয়ে বেধম মারধর করে। এসময় এদের নেতৃত্ব দেয় স্থানীয় মাকসুদ হাওলাদার। তাদের লাঠির আঘাতে ইব্রাহীম গুরুতর আহত হলে তাকে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে তার ব্যবহৃত হিরো আই স্মার্ট মোটরসাইকেলটি নিয়ে চলে যায় হামলাকারীরা। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বাড়িয়ে পৌঁছে দেয়। বাড়ির লোকজন তাঁর অবস্থা গুরুতর দেখে অ্যাম্বুলেন্সে করে ভোলা সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি। তাদের লঠির আঘাতে ইব্রাহীমের ডান হাতের কয়েক যায়গা দিয়ে ফেটে যায় ও পায়ের হাটু জয়েন্ট ভেঙে যাওয়ার পাশাপাশি শরীরের বিভিন্ন স্থানে ফুলে যায়। এ ঘটনায় তিনি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানায় ইব্রাহীম লিটন।এ বিষয়ে অভিযুক্ত লিটন জানায়, তিনি ইব্রাহীম লিটনকে কোনো মারধর করেন নাই। বরং বিষয়টি তিনি ফেসবুকে দেখেছেন। কে বা কাহারা তাকে মারধর করেছে সেটিও তিনি জানে না।এ ব্যাপারে লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান জানান, বিষয়টি তিনি অন্য লোকজনের মাধ্যমে শুনেছেন। তবে এখনো কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ বা মামলা করেনি। অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নিবেন।

ফেসবুকে লাইক দিন