সর্বশেষঃ

বোরহানউদ্দিনে গৃহবধূ মিতু হত্যা,বিচারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন!!

মোকাম্মেল হক মিলনঃ-ভোলার বোরহানউদ্দিনে গৃহবধূর মিতু হত্যার বিচার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন আজ 26জুলাই দুপুর বেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মিতু হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য দাবি করেন বাবা মোঃ বশির মীর। মিতুর বাবা সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন আমার মেয়েকে তার স্বামী জুয়েল ও তার ভাই রুবেল,মা, ভাবী ও আলতাফ হোসেন, শাহাদাত হোসেন সহ আত্মীয়-স্বজনরা গত 21জুলাই রাত সাড়ে 11টায় বাগা দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আমার বাড়ীতে ফোন করে অপর মেয়ে সীমাকে জানান মিতু মারা গেছে। এই খবর পেয়ে আমি সহ অন্যান্যরা মিতুর শশুর বাড়ীতে এসে দেখতে পাই, মেয়ে কে খাটের উপর শোয়াইয়া রেখেছে, তার শরীরে ,গালে,পাজরে, হাঁটুতে, তলপেটে মাথায়ও আঘাতের চিহ্ন দেখে চিৎকার করে উঠে বলি তোরা আমার মেয়ে মিতু কে মেরে ফেলছো, তখন আসামিরা বাড়ি থেকে সরে যায় এবং পুলিশ এসে আমাদের সকলকে ঘর থেকে বের দেয় ও মিতুকে থানায় নিয়ে আসে।আমি থানায় গিয়ে বলি আসামি জুয়েল, রিয়াজ ওরফে রুবেল,হাজেরা খাতুন,মোসা শাহনাজ ও মোঃ শাহাদাত হোসেন ও আলতাফ হোসেন সহ আত্মীয়-স্বজনরা পিটিয়ে হত্যা করেছে।সা গণ তা জানেন। তখন পুলিশ আমার কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে বলে মামলা লিখে নেব আর মিতুকে ভোলা সদর হাসপাতালে পোস্টমর্টেম করতে পাঠিয়ে দেয় । সেখান থেকে মিতুর লাশ নিয়ে আমরা দাফন করে আবার থানায় আসলে দারোগা মামলা না নিয়ে আদালতে কোর্টে মামলা করার জন্য বলেন। বোরহান উদ্দিন উপজেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত বিষয়টি তদন্ত-পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন এ সময় জুয়েনার কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন ওরা আমার মাকে পিটিয়ে মেরেছে ,আমি তাদের ফাঁসি চাই, আমরা এতিম হয়ে গেছি,আমাদেরকে কে দেখবেন ,আমরা এখন নানা নানুর কাছে আছি ।আমার মায়ের হত্যার বিচার চাই। আড়াই বছর বয়সী শিশু জুনাইদ মা বেঁচে আছে কিনা বুঝতে পারছে না । অভিযোগে বলেন, আসামি রিয়াজ ওরফে রুবেল নিজেকে বোরহানউদ্দিন থানার সোর্স ও দালাল ,কেউ কিছু করতে পারবে না বলে হুমকি দেয়।সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন মেয়ের দুই মামা সহ বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজন তারা উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেন এবং অবিলম্বে আসামিদের গ্রেফতার করে শাস্তি দাবি করেন।

ফেসবুকে লাইক দিন