বিশ্বকাপ ড্র: দেখে নিন কে কোন গ্রুপে

অনলাইন ডেস্ক :

দেখতে দেখতে আবারও দরজায় কড়া নাড়ছে বিশ্বকাপ। আট মাসেরও কম সময়ের মধ্যে শুরু হতে যাওয়া এই মহারণ দেখবে সারা বিশ্বের প্রায় ৫০০ কোটি মানুষ। কাতারে এই তথ্য দিলেন স্বয়ং ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। ফিফা সভাপতি আরও একটি বড় ঘোষণা দেন। বলেন, এই বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিশ্বকাপ।

আজ কাতারের দোহায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ড্রয়ের অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রেশমিন চৌধুরী ও হলিউড তারকা ইদ্রিস আলবা। ড্রয়ের আগে প্রথমবারের মতো সম্প্রচারিত হয় বিশ্বকাপের অফিশিয়াল সাউন্ডট্র্যাক ‘হাইয়া হাইয়া’। মঞ্চে গানটি সরাসরি পরিবেশন করেন ত্রিনিদাদ কারদোনা, দাভিদো ও আইশা।

এরপর শুরু হয় ড্র। চলুন দেখে নেওয়া যাক, ড্র শেষে কে পড়েছে কোন গ্রুপে :

গ্রুপ ‘এ’: কাতার, ইকুয়েডর, সেনেগাল, নেদারল্যান্ডস

দুই মহাদেশীয় চ্যাম্পিয়নের সঙ্গে একই গ্রুপে পড়েছে ভার্জিল ভ্যান ডাইকের নেদারল্যান্ডস। বিশ্বকাপের আয়োজক ও এএফসি এশিয়ান কাপ চ্যাম্পিয়ন কাতারকে নেওয়া হয়েছে এক নম্বর পট থেকে। নক-আউট পর্বের স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করতে যাওয়া আফকন চ্যাম্পিয়ন সেনেগাল এই গ্রুপ দেখে হয়তো সন্তুষ্টই হয়েছে। আর বর্তমান কোচ লুই ভ্যান গালের নেতৃত্বে সর্বশেষ ২০১৪ বিশ্বকাপে উদ্যমী ফুটবল উপহার দেওয়া ডাচ বাহিনী এবারও হয়ত একই রকম অনুপ্রেরণায় শুরু করবে বিশ্বকাপ যাত্রা। এই গ্রুপের অপর বাছাই দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ইকুয়েডর।

গ্রুপ ‘বি’: ইংল্যান্ড, ইরান, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় প্লেঅফ বিজয়ী (ইউক্রেন/ওয়েলস/স্কটল্যান্ড) 

কোচ গ্যারেথ সাউথগেট কদিন আগেই বলেছেন, এবার বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা রয়েছে ইংল্যান্ডের। সেই লক্ষ্যে থ্রি লায়ন্সদের প্রাথমিক বাধা পার করতে হবে ইরান, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় প্লেঅফের সর্বশেষ দলের (ওয়েলস অথবা ইউক্রেন-স্কটল্যান্ডের মধ্যকার এক দল) বিপক্ষে খেলে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, শক্তিমত্তায় ইংল্যান্ডের সমকক্ষ না হলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কখনোই বিশ্বকাপের মঞ্চে হারেনি যুক্তরাষ্ট্র। আর প্রতিবারই ভালো খেলে গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়া ইরান হয়তো চাইবে এবার শেকল ভেঙে নক-আউট পর্বে পা দিতে।

গ্রুপ ‘সি’: আর্জেন্টিনা, সৌদি আরব, মেক্সিকো, পোল্যান্ড

মেসি-লেভার গ্রুপ। কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা চাইবে তাদের সাম্প্রতিক ছন্দ বিশ্বকাপেও ধরে রাখতে। লিওনেল মেসির সর্বশেষ বিশ্বকাপে পুরো দলই হয়ত চাইবে ১৯৮৬ সালের পর আবার সোনালি শিরোপাটিতে হাত রাখতে। এই গ্রুপে লিওনেল মেসি মুখোমুখি হবেন তার ব্যালন ডি’অর প্রতিদ্বন্দ্বী রবার্ট লেভানডফস্কির। পোল্যান্ডের মতো আন্ডারডগ হিসেবেই গ্রুপ পর্ব শুরু করবে ফুটবল পাগল দেশ মেক্সিকো। সাথে রয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দল সৌদি আরব।

গ্রুপ ‘ডি’: ফ্রান্স, আন্তঃমহাদেশীয় প্লেঅফ ১ বিজয়ী (পেরু/অস্ট্রেলিয়া/আরব আমিরাত), ডেনমার্ক, তিউনিশিয়া

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স তুলনামূলক সহজ একটি গ্রুপেই পড়েছে। দিদিয়ের দেশমের দলের সঙ্গে একই গ্রুপে পড়েছে গত ইউরোতে নজর কাড়া ডেনমার্ক। এরিকসনদের সঙ্গে বিশ্বকাপের মঞ্চে দেখা হচ্ছে উত্তর আফ্রিকার দল তিউনিশিয়া ও আন্তঃমহাদেশীয় প্লেঅফ ১-এ বিজয়ী দল (পেরু অথবা অস্ট্রেলিয়া-আরব আমিরাতের মধ্যকার জয়ী দল)।

গ্রুপ ‘ই’: স্পেন, আন্তঃমহাদেশীয় প্লেঅফ ২ বিজয়ী (কোস্টারিকা/নিউজিল্যান্ড), জার্মানি, জাপান

২০০৮ ইউরোর দুই ফাইনালিস্ট মুখোমুখি হতে যাচ্ছে এই গ্রুপে। ইউরোপীয় পরাশক্তি স্পেন ও জার্মানির পাশাপাশি এই গ্রুপে রয়েছে এশীয় পরাশক্তি জাপান। সাথে থাকছে আন্তঃমহাদেশীয় প্লেঅফ ২-এ বিজয়ী দল (কোস্টারিকা বা নিউজিল্যান্ড)।

গ্রুপ ‘এফ’: বেলজিয়াম, কানাডা, মরক্কো, ক্রোয়েশিয়া 

টানা চার বছরের মতো ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থেকে সম্প্রতি দুইয়ে নেমে যাওয়া বেলজিয়ামের সঙ্গে এই গ্রুপে জায়গা করে নিয়েছে গত বিশ্বকাপের রানার আপ ক্রোয়েশিয়া। মদ্রিচ-ডি ব্রুইনাদের গ্রুপে আরও আছে ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়া কানাডা। আর এই গ্রুপে অঘটন ঘটানোর আশায় কাতারে পা রাখবে আশরাফ হাকিমির মরক্কো।

গ্রুপ ‘জি’: ব্রাজিল, সার্বিয়া, সুইজারল্যান্ড, ক্যামেরুন

পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের সঙ্গে একই গ্রুপে পড়েছে প্রতিটি আসরে নান্দনিক ফুটবল উপহার দেওয়া সুইজারল্যান্ড। জারদান শাকিরিদের সঙ্গে দেখা হচ্ছে গ্রুপের অপর ইউরোপীয় দল সার্বিয়ার। আর সাথে রয়েছে আফ্রিকান ফুটবলের পরাশক্তি ক্যামেরুন।

গ্রুপ ‘এইচ’: পর্তুগাল, ঘানা, উরুগুয়ে, কোরিয়া    

মেসির মতো ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরও হয়ত শেষ বিশ্বকাপ এটি। হয়ত শেষ বিশ্বকাপ সুয়ারেজ-কাভানিরও। বিশ্ব ফুটবলের তিন তারকা মুখোমুখি হতে যাচ্ছে সর্বশেষ গ্রুপটিতে। পর্তুগাল, উরুগুয়ের সঙ্গে এই গ্রুপে আরও জায়গা করে নিয়েছে সন হিউয়েঙ-মিনের কোরিয়া। আর উরুগুয়ের জন্য ২০১০ বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল বঞ্চিত হওয়া ঘানা তাদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে  প্রতিশোধের স্পৃহাতেই। এবারের ড্রতে তর্কসাপেক্ষে সবচেয়ে কঠিন গ্রুপ এটিই।

ফেসবুকে লাইক দিন