আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে চান? - বিস্তারিত
ঢাকা আজঃ শুক্রবার, ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ ইং, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরী
সর্বশেষঃ

5G নেটওয়ার্ক চালু করে গোটা বিশ্বকে চমকে দিল বাংলাদেশ, 2G পরিষেবাই পাওয়া যায় না বলে অভিযোগ অনেকের

অনলাইন ডেস্ক :
এবার পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক চালু করে প্রযুক্তিগত লড়াইয়ে অনেক দেশকে পেছনে ফেললো বাংলাদেশ। 5G উপলব্ধতার দিক দিয়ে গোটা বিশ্বের ৬৭টি দেশের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে ভারতের পড়শি দেশটি। চীনা কোম্পানি Huawei (হুয়াওয়ে)-এর প্রযুক্তিগত সহায়তায় সপ্তাহের শুরুতে টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড, 5G (৫জি) নেটওয়ার্ক চালু করেছে। এই নতুন নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের ডিজিটাল ট্রান্সফর্মেশনকে ত্বরান্বিত করবে এবং এই আপগ্রেড কানেক্টিভিটি সবাইকে উন্নত প্রযুক্তির স্বাদ দেবে বলে দাবি করা হয়েছে।
পরীক্ষামূলকভাবে বাংলাদেশে চালু হয়েছে 5G
গত রবিবার বাংলাদেশ সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক (ICT) উপদেষ্টা সজীব আহমেদ ওয়াজেদ, ‘নিউ এরা উইথ ৫জি’ শীর্ষক একটি ইভেন্টে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের সিইও ঝ্যাং ঝেংজুন এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. শ্যাম সুন্দর সিকদারের মত ব্যক্তিত্বের উপস্থিতিতে পরীক্ষামূলকভাবে ৫জি পরিষেবার উদ্বোধন করেন। এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, এখন বাংলাদেশ সচিবালয়, জাতীয় সংসদ এলাকা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর, সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধ এবং গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিসৌধের আশেপাশের ৬টি স্থানে ৫জি নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে। এরপর ধীরে ধীরে কভারেজ দেশের আরও অঞ্চলে প্রসারিত হবে।এই বিষয়ে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন যে, ডিজিটাল বাংলাদেশকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার মূল চাবিকাঠি হচ্ছে সংযোগ বা কানেক্টিভিটি। আধুনিক যুগে এখন সবকিছুই ডিজিটালি হচ্ছে; সেক্ষেত্রে তাদের দেশ এরফলে উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে সক্ষম হবে বলেই তাঁর মত। এছাড়াও ওয়াজেদ দেশের টেলিযোগাযোগ-তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, হুয়াওয়ে এবং এই পরিষেবার সাথে যুক্ত ব্যক্তিত্বদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। অন্যদিকে টেলিটকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মহম্মদ সাহাবুদ্দিন বলেছেন যে, তারা সবেমাত্র ৫জি চালুর দিকে একধাপ এগিয়েছেন, এখনো তাদের অনেক পথ চলা বাকি। উল্লেখ্য উক্ত ইভেন্টে, একটি অস্থায়ী 5G সাইট চালু করা হয়েছিল, যেখানে সদস্যরা AR/VR পরিষেবার অভিজ্ঞতা লাভ করেছেন, উদ্ভাবনী ৫জির ব্যবহারিক দিক সম্পর্কে জেনেছেন এবং ৯৬৯ এমবিপিএস গতি পেয়েছেন। তবে বাংলাদেশের অনেক ইউজার এই ঘটনা কে কটাক্ষ করেছেন। তাদের অভিযোগ, যে দেশের অনেক অঞ্চলে এখনও সঠিকভাবে 2G নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না, সেদেশে 5G চালু করা বিলাসিতা ছাড়া আর কিছু নয়।

ফেসবুকে লাইক দিন