ভারত-আফগানিস্তান ম্যাচে ফিক্সিং হয়েছে, গুরুতর অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক :

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গত বুধবার মুখোমুখি হয়েছিল ভারত-আফগানিস্তান। আর সেই ম্যাচ নাকি ফিক্সড ছিল। ভারতকে জিতিয়ে দেওয়ার জন্য ইচ্ছা করে খারাপ বোলিং করেছে আফগানিস্তান। বাজে ফিল্ডিং আর সহজ ক্যাচও ফেলেছেন একাধিক আফগান ফিল্ডার। ওই ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই আজব দাবি করা শুরু করেন অনেকেই। সেই তালিকায় নাম লেখালেন পাকিস্তানের এক অভিনেত্রীও। পাকিস্তানের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলগুলিতে বলা হচ্ছে, যে আফগানরা বিশ্বকাপের বাকি ম্যাচগুলিতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছে, লড়াকু মনোভাব দেখিয়েছে, সেই আফগানরা ভারতের বিরুদ্ধে তেমন লড়াই করেনি। এমনকি, কিছু কিছু পাকিস্তানি সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে আবার সরাসরি বলে দেওয়া হচ্ছে, বিসিসিআই এই ম্যাচ আফগানদের কাছ থেকে কিনে নিয়েছে। ক্রিকেটের মতো ভদ্রলোকের খেলাকে নষ্ট করছে ভারতীয় বোর্ড এই তালিকায় নাম লিখিয়েছেন পাকিস্তানি অভিনেত্রী শেহর সিনওয়ারিও। তার দাবি,বিসিসিআই দারুন একটা ম্যাচ কিনে নিয়েছে। এই ম্যাচ ফিক্সিংয়ের পিছনে যুক্তি দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচুর মিমও শেয়ার করেছেন পাকিস্তানিরা। টুইটারে ফিক্সড নামের একটি হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডিংও হয়েছে। পাক অভিনেত্রীর এই টুইটের জবাব অবশ্য দিয়েছেন টিম ইন্ডিয়ার সাবেক ক্রিকেটার আকাশ চোপড়াও। অভিনেত্রীর টুইটটি রিটুইট করে আকাশ চোপড়া খোঁচা দিয়ে বলেছেন, যাদের মস্তিষ্ক বন্ধ, তারা যদি মুখটাও বন্ধ রাখত। শুধু আকাশ চোপড়া নন, পাকিস্তানের একাধিক কিংবদন্তি ক্রিকেটারও এই ম্যাচ ফিক্সিংয়ের তত্ত্বকে গুরুত্ব দেননি। ওয়াসিম আকরাম বলছেন, ভারত খুব ভাল দল। তাদের দুইটি দিন খারাপ গেছে। কিন্তু এই ধরনের অভিযোগকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত নয়।। একই সুরে ওয়াকার ইউনুসও বলেছেন, ম্যাচ ফিক্সিংয়ের এই অভিযোগ ভিত্তিহীন। যারা এই অভিযোগ করছে, তাদের গুরুত্ব দেওয়ার প্রয়োজন নেই। প্রসঙ্গত, আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ৬৬ রানে ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা কিছুটা হলেও জিইয়ে রেখেছে ভারত। যদিও ভারতকে সেমিফাইনালে যেতে হলে অত্যন্ত কঠিন কয়েকটি সমীকরণ ঠিক হতে হবে। তাই ভারতীয়রা তেমন একটা আশাও দেখছেন না। কিন্তু তাই বলে আফগানদের বিরুদ্ধে কোহলিদের জয়কে এভাবে খাটো করার কোনও অর্থ হয় না।

ফেসবুকে লাইক দিন