ভোলা থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঢাকা চট্রগ্রাম রওনা।।

বিশেষ প্রতিনিধি।।

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দ্বীপ জেলা ভোলা থেকে ঢাকা চট্রগ্রাম যাওয়ার জন্য ভীর জমায় যাত্রীগন।
কর্মস্থল বন্ধের কথা শুনে নিজ নিজ বাড়ীতে এসে পরিবারের সদস্যদের সাথে ঈদ উদযাপন করেছে কর্মকতা কর্মচারীরা।

কিন্তু গতকাল হঠাৎ ঘোষনা হয় রবিবার থেকে সকল শিল্প কল কারখানা খোলা হবে, এমন ঘোষণার পর বিপাকে পড়তে হয় যাত্রীদের।
শুক্রবার ঘোষণার পর থেকেই ফেরিঘাটে যাত্রীদের ভীর চোঁখে পরার মত ছিলো।

আজ শনিবার ভোর থেকে হাজার হাজার যাত্রী ঘাটে এসে ভীর করলে কোস্টগার্ড, নৌ পুলিশ, ইলিশা ফাঁড়ির পুলিশ ঘাটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার চেষ্টা করেও তারা ব্যর্থ হয়।

অবশেষে আনুমানিক সকাল১০ টার দিকে ইলিশাঘাট থেকে কৃষাণী নামের একটি ফেরি গাদাগাদি করে গাড়ী ছাড়া শুধু যাত্রী নিয়েই ছেড়ে যায়।

উত্তাল মেঘনায় ফেরি যাত্রীদের জন্য যতটা নিরাপদ তার চেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ট্রলার স্পিডবোঢ, ঘাটের একটি চক্র টাকার বিনিময়ে প্রশাসন কে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে যাত্রী পারাপার করছে, যে কোন মুহুত্বে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে অবৈধ ট্রলার স্পিডবোঢ এর বিরুদ্ধে তারা জিরোট্রলারেন্সে রয়েছেন।

ইলিশা ফাঁড়ির ইনচার্জ আনিসুর রহমান জানায়, এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে আমরা শতভাগ চেষ্টা করেছি কিন্তু যাত্রীদের চাপে করতে পারিনি।

ফেসবুকে লাইক দিন