ভোলায় প্রশাসনের অ্যাকশন,২১ জনের জেল ও ৪১ জনের জরিমানা

রোকনউদ্দিন হাওলাদার##

স্বাস্থ্যবিধি অমান্য এবং বিনা কারণে ঘোরাঘুরির অপরাধে ভোলায় ২১ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড এবং ৪১ জনের থেকে জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত চারটি ভ্রাম্যমাণ আদালত এ জেল জরিমানা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে ভোলা সদরে আটজন, বোরহানউদ্দিনে ১০ ও চরফ্যাশনে তিনজন রয়েছে। এছাড়া এ তিন উপজেলায় ৪১ জনকে ৪৫ হাজার ৮শ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এদের মধ্যে সদর উপজেলায় ২৯ জনের কাছ থেকে ২৩ হাজার ৮শ টাকা, বোরহানউদ্দিনে ১৫ জনের থেকে ১২ হাজার এবং চরফ্যাশন উপজেলায় আট জনের থেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আকিব ওসমান জানান, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি নিষেধাজ্ঞা/নির্দেশনা বাস্তবায়ন ও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে জেলায় চারটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়েছে। এ অভিযানে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ২১ জনের কারাদণ্ড এবং ৪১ জনের জরিমানা করা হয়েছে। ৬০ মামলায় এ জেল-জরিমানা করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, ১ জুলাই থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত জেলার সাত উপজেলায় সর্বমোট ৫৮ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড এবং ২ হাজার ৭২ জনকে ১৭ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ টাকা জরিমানা করা হয়। জেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে ভোলায় বেড়েই চলছে করোনা সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় ২২০ টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৩৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তের হার ৬২ শতাংশ। কঠোর বিধিনিষেধের চতুর্থদিনে শহরে জনসমাগম ঠেকাতে শক্ত অবস্থানে ছিলো প্রশাসন।

শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, র‌্যাব, নৌ বাহিনী, কোস্টগার্ড ও বিজিবিসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের টহল দেখা গেছে।

স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন এবং বিনা কারণে ঘোরাফেরার কারণে জেল-জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়াও পুলিশের চেকপোস্ট রয়েছে।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিদওয়ানুল ইসলাম জানান, কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসনে টিম মাঠে রয়েছে।
করোনা সংক্রমণরোধে আমাদের কঠোর অভিযান চলছে। জনসমাগম ঠেকাতে আমরা কাজ করছি।

ফেসবুকে লাইক দিন