সর্বশেষঃ

বেসামাল দ্রব্যমূল্যের দাম, ভোলার বাজারে লোক দেখানো অভিযান!!

ভোলার খবর ডেস্কঃ- নিয়ন্ত্রনহীন দ্রব্যমূল্যের দাম।। সারাদেশের ন্যায় ভোলায় দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি হয়েছে কয়েক গুণ, পন্য মূল্যের দাম বৃদ্ধি হলেও বৃদ্ধি পায়নি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী সহ পেশাজীবী মানুষের বেতন ভাতা। তেল-গ্যাস বিদ্যুতের দাম অধিকমাত্রায় বৃদ্ধির পরপর মূল্যের দাম বেড়েছে কয়েকগুণ। দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করছে সরাদেশের সাধারণ মানুষসহ পেশাজীবীগণ। এদিকে আজ ১৬ আগস্ট ভোলার বাজারে দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণে ভোলা জেলা প্রশাসন,ভোক্তা অধিকার কর্মকর্তা,কৃষি বিপণন কেন্দ্রের যৌথ পরিচালনায় মাঠ পর্যায়ে অভিযান পরিচালনা করতে দেখা যায়।।

মোঃ শরীফ, আমজাদসহ বেশ কয়েকজনের ক্রেতা সাধারণ অস্থির দ্রব্যমূল্য বাজারের নিয়ে ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এবং জানিয়েছেন তেল-গ্যাস বিদ্যুতের দাম না কমালে, মূল্যের দাম কমানো সম্ভব নয় এবং দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণ করার অভিযান লোকদেখানো ও হাস্যকর বটে।। বিষয়টি নিয়ে আজ ভোলার বাজার নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্য ক্রয় করতে গিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এডভোকেট মনিরুল ইসলাম জাননা, তেল গ্যাস ও বিদ্যুৎ দাম না কমালে দ্রব্য দাম কমানো অসম্ভব এ অভিযান শুধু লোক দেখানো ছাড়া আর কিছুনা। যেভাবে পরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি হয়েছে যা ভোলাবাসীর জন্য খুবই দুঃখজনক।।

ভোলার বাজারে (১৬ আগস্ট) খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৮৫-১৯০ টাকা কেজিতে। এর তবে আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে বোতলজাত তেল। বাজারে বোতলজাত তেল বিক্রি হচ্ছে ১৯২ টাকা লিটার। আর পাঁচ লিটারের বোতল বিক্রি হচ্ছে ৯৫০-১০০০ টাকায়। এছাড়া চিনি মূল্য ৯০,সরিষার তেল ২৭০ টাকা,মশারি ডাল ১১৫ টাকা,লবণ ৪০ টাকা,ডিম প্রতি হালি 50 টাকা,প্রতি কেজি চাউল ৫৫-৭০টাকা, প্রতি কেজি আলু 25 টাকা, প্রতি কেজি আদা 200 টাকা!!প্রতি কেজি গুরা চাউল১০০ টাকা।। ভোলার কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, অনেকটা চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে টমেটো ও শিম। এক কেজি টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকায়। আর শিমের কেজি ১৬০ টাকা!এছাড়াও প্রতি কেজি কাঁচামরিচ ৩০০-৩২০ টাকা, বেগুন ৫০ টাকা, করলা ও কচুর লতি ৪০ টাকা, বরবটি, চিচিঙ্গা, ঝিঙ্গা, ঢেঁড়স ও ধুন্দুল ৪০ টাকা, দেশি শসা ৫০ টাকা, পেঁপে ২০ টাকা টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৫১ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। রসুন বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা কেজিতে। আর আদা বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়। প্রতি কেজি দেশি রসুন ও আদা বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২০০-২১০ টাকা কেজি দরে। এছাড়াও সোনালী ২৭০ থেকে ২৮০ টাকা, দেশি মুরগি ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। বাজারে প্রতি কেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৫৮০ থেকে ৬০০ টাকা ও খাসির মাংস ৮০০-৮৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ভোলার মাছ বাজার নিয়ে আসছে বিস্তারিত দ্বিতীয় পর্বে

ফেসবুকে লাইক দিন